প্রশ্নপত্র ফাঁসে যুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিই নিশ্চিত করতে পারে নতুন প্রজন্মের সুন্দর ভবিষ্যত

0
433

প্রশ্নপত্র ফাঁসে যুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিই নিশ্চিত করতে পারে নতুন প্রজন্মের সুন্দর ভবিষ্যত

শিক্ষার্থীদের মেধা ও অর্জিত জ্ঞান যাচাইয়ে পরীক্ষার বিকল্প কোন পদ্ধতি নেই। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে আমাদের দেশে পরীক্ষা ব্যবস্থা নানা কারণে বিতর্কের জালে জড়িয়ে আছে। বিগত বছরগুলোতে পাবলিক পরীক্ষায় পাসের হার ব্যাপক বেড়ে যাওয়ায় পরীক্ষা ব্যবস্থা নানা প্রশ্নের সম্মুখীন। বর্তমান সময়ে আলোচিত ও সমালোচিত বিষয় হল প্রশ্নপত্র ফাঁস। প্রশ্ন ফাঁস এখন এমন এক পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরাও এর সঙ্গে যুক্ত হয়ে পড়ছে। নিয়োগ পরীক্ষা, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা থেকে শুরু করে বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষায় একের পর এক ঘটে চলেছে প্রশ্ন ফাঁসের মতো জঘন্য ঘটনা। পরিস্থিতি এমন যে প্রায় সব জায়গাতেই সত্যকে অস্বীকার করার প্রবণতা তৈরি হচ্ছে। মাত্র অল্প কয়েকদিন আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনা সবারই জানা। এ ঘটনায় সম্পৃক্ত বেশ কয়েকজনকে পুলিশ আটক করেছে এবং প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনায় যে একটা বিশাল চক্র যুক্ত সে তথ্যও পেয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো দেশের শীর্ষ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেও যখন প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনা ঘটে, তখন স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্নের জন্ম দেয় কোথায় যাচ্ছে দেশের শিক্ষাব্যবস্থা?
নানা কারণে প্রশ্ন ফাঁস হয়। দ্রুত সেসকল কারণ চিহ্নিত করে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ না করলে আমাদের পরীক্ষা ব্যবস্থার ওপর সকলেই আস্থা হারিয়ে ফেলবে। এই ধারা চলতে থাকলে আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থা নিজ দেশে তো বটে -বহির্বিশ্বেও গ্রহণযোগ্যতা হারাবে। সর্বোপরি আমাদের প্রশ্ন ফাঁস রোধে কার্যকর পদক্ষেপ না নিলে জাতি হিসেবে নতুন প্রজন্ম কোনদিন মাথা উঁচু করে দাড়াতে সক্ষম হবে না।
একদিকে প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনা বেড়েই চলেছে, অন্যদিকে ২০১৫ সালের প্রস্তাবিত শিক্ষা আইনের খসড়ায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের সর্বোচ্চ সাজা ১০ বছর থেকে কমিয়ে ৪ বছর করা হয়েছে। এ পরিস্থিতির অবসান জরুরি। জাতিকে প্রশ্ন ফাঁসের হাত থেকে উদ্ধার করতেই হবে। যারা এ কাজ করে তারা দেশ, জাতি ও মানবতার শত্রু। প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে যুক্ত সকলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির মাধ্যমে সমূলে উৎপাটনের ব্যবস্থা করতে হবে। নাহয় জাতির সকল সম্ভাবনা অঙ্কুরেই নষ্ট হবে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here