‘যৌন হেনস্তায় সকলেরইমুখ খোলা উচিত’

0
265
www.HDWallpapersForPC.com

গত বছরের শেষ দিকে যৌন হেনস্তার বিষয় নিয়ে তুমুল আওয়াজ ওঠে গোটা হলিউডে। প্রযোজক হার্ভে ওয়াইনস্টেইনের বিরুদ্ধে একজন অভিনেত্রী যৌন হেনস্তার অভিযোগ করার পর এটা নিয়ে একে একে মুখ খুলতে শুরু করেন হলিউডের অন্যান্য সব নামকরা অভিনেত্রীরাও। যৌন হেনস্তার প্রতিবাদে হলিউডের রাস্তায় তারা মিছিলও বের করে।

ক্রমে ক্রমে এই প্রতিবাদের বাতাস লাগে বলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতেও। বিদ্যা বালান, প্রিয়াংকা চোপড়া, দীপিকা পাড়ুকোন, কঙ্গনা রানাউতের মতো অভিনেত্রীরা বিভিন্ন সময়ে তাদের সঙ্গে ঘটে যাওয়া যৌন হেনস্তার নানা ঘটনা শেয়ার করেন। এমনকী, এই কাস্টিং কাউস নিয়ে ফেসবুক লাইভে এসে মুখ খোলেন একজন বাংলাদেশি মডেল ও অভিনেত্রীও।

কিন্তু এ ব্যাপারে এতদিন মুখে কুলুপ এটে ছিলেন বলিউডের সাবেক বিশ্বসুন্দরী ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন। যদিও প্রযোজক হার্ভে নাকি তাকেও যৌন সম্পর্ক গড়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন বলে মাস কয়েক আগে জানিয়েছিলেন ঐশ্বরিয়ার সাবেক ম্যানেজার সিমন। তারপরও এতদিন কোনো মন্তব্য করেননি বচ্চন পরিবারের পুত্রবধূ।

তবে দেরিতে হলেও কথা ফুটেছে সাবেক বিশ্বসুন্দরীর মুখে। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বিষয়টি নিয়ে তিনি বলেন, ‘#MeToo আন্দোলনে সামিল হয়ে সকলেই নিজের মতো করে মত প্রকাশ করছেন। এটা খুব ভালো বিষয়। আরও ভালো বিষয় যে, সকল অভিনেত্রীরাই এটা নিয়ে আলোচনা করছেন। তবে বিশ্বের এক অংশে এটাকে আটকে রাখা ঠিক নয়। কেননা বিষয়টি ইতিবাচক।’

আরও পড়ুন: ঐশ্বরিয়াকেকুপ্রস্তাবদিয়েছিলেন হলিউড পরিচালক

অ্যাশ আরও বলেন, ‘শুধু অভিনেত্রীরাই নন, সমাজের বিভিন্ন স্তরে অনেক সাধারণ নারীও যৌন হেনস্তার শিকার হন। যদি কোনো নারীর সঙ্গে এমনটা ঘটে বা তাকে সমঝোতা করতে বাধ্য করা হয়, তবে তার বেরিয়ে এসে মুখ খোলা উচিত। এটা শুধু সেলেব্রিটিদের মধ্যেই আটকে থাকার বিষয় নয়। সকলেরই এতে এগিয়ে আসা উচিত।’

হার্ভের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে গত বছরের অক্টোবরে।  বিখ্যাত এ হলিউড প্রযোজকের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানান অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলিসহ ১২ জন নারী। যার প্রেক্ষিতে তাকে অস্কার বোর্ড থেকে অপসারণ করে কর্তৃপক্ষ। পরে #MeToo এর মাধ্যমে আরও ৬০ জন নারী একই অভিযোগ আনেন হার্ভের বিরুদ্ধে।

পরে এ বিষয় নিয়ে তদন্তে নামে নিউ ইয়র্ক পুলিশ। গঠন করা হয় তদন্ত কমিটিও। কিন্তু ছয় মাস কেটে গেলেও সে কমিটির কোনো প্রতিবেদন এখনও প্রকাশ পায়নি। বরং কিছুদিন আগে হার্ভের আইনজীবী তাকে নির্দোষ দাবি করেন।  এমনকী, হার্ভেও তার বিরুদ্ধে ওঠা যৌন হেনস্তা ও ধর্ষণের সব অভিযোগ শুরু থেকেই অস্বীকার করে আসছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here